• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৯:১১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক! ফেসবুকে পরিচয় ও প্রেম-অতপরঃ এক কলেজ শিক্ষিকাকে কলেজ ছাত্রের বিয়ে!

হঠাৎ যদি মৃত্যু এসে যায়…।

AnonymousFox_bwo / ৩০৩ মিনিট
আপডেট মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল, ২০২১

আইকন নিউজ ডেস্কঃ

এশার নমাজে দাঁড়িয়ে আবেগমথিত হয়ে পড়লাম। মৃত্যুর তল্লাটে পরিণত হচ্ছে স্বদেশ। ঘরে ঘরে মরণের দূত হাজির। হাসপাতালে হাসপাতালে বুকফাটা আর্তনাদ। মন নরম হয়ে নীরব হয়ে বসে মনেরও ওপারে.. চক্ষু গড়িয়ে এলো জল,
“বেলা যে পড়ে এলো জলকে চল!” এত মরণ দেখেও হুঁশ হয় না। বিবেক কাঁদে না। নিন্দাসূচক বাক্য,খোঁচাখুঁচি, প্রগলভতায় নিত্য নিরন্তর মজে রই।

নিজের কবর কল্পনা করছিলাম। কাফন।দাফন। হঠাৎই যদি ডাক আসে,আহারে অপ্রস্তুত আমি কী করে যাবো! তার অমর উচ্চারণ,
“ওলা তামুতুন্না ইল্লা ওয়ানতুম মুসলিমুন।” যদিচ মুসলিম হইতাম,তবে কী মিথ্যায় গীবতে গরিমায় ইতরতায় আকণ্ঠ নিমজ্জিত হতে পার‍তাম। বয়ান শুনছিলাম ড.আব্দুস সালাম আজাদীর…। তিনি বলছিলেন, প্রতিদিন একটু একটু করে জাহান্নামের পথ থেকে সরে,অগ্রসর হতে হবে জান্নাতের অভয়ারণ্যে। অথচ ডানে বাঁয়ে শুধুই দেখছি হাবিয়া দোজখের কায়কারবার! নয় কী?

মরে গেলে নিন্দুকেরাও শংসায় মাতবেন। শুভাকাঙ্ক্ষীগণ সুবচনে দুইদিন কীর্তন করবেন।পরিবার হাপিত্যেশ করে করে অনস্তিত্বের মাশুল গুণবে…।অথচ কে না জানি অনিবার্য মৃত্যুদূত গর্দানওপরি বসে আছে তার কর্মসাধনের মহান অভিপ্রায়ে…।

সুহৃদ স্বজন সকলে মিলিত হয়ে যখন লাশের চূড়ান্ত গন্তব্য ঠিক করবে,তখন রুহি উপমা আর ইলহাম অপাংক্তেয় হয়ে যাবে! তারা বুঝবার আগেই তাদের পরিচয় বদলে যাবে…।ভাবা যায়!!! এইটা কি খুব অলৌকিক কিছু! একদমই না। আমার মৃত্যুর প্রস্তুতি আজই শুরু হলো… আপনার? হোক একসঙ্গে।

অগ্রজ অভিভাবক Borhan Uddin অনুরোধ করেছেন সন্তানের নৈতিকতা নিয়ে বেড়ে ওঠার ওপর লিখতে। এই লেখার শেষাংশ তাঁর অনুরোধ মানবার প্রথম পদক্ষেপ। কথায় আছে,
“If you teach your children the 3R,that is reading writing and arithmetics and exclude the 4th R that is Religion you will get the 5th R that is rascal. ”

আজ দেশে দেশে ধর্ম ও নৈতিকতাহীন জ্ঞানের প্রাবল্য দেখি। সেইকারণে সন্তান বখে যায়। মা-বাবার লালিত স্বপ্ন মুখথুবড়ে পড়ে। যে ছেলে মেয়ে মায়ের জন্যে বাবার উদ্দেশে দুটো দোয়া পড়ে প্রার্থনা করবার ভাষা শেখেনি,সে আর যাই হোক সুসন্তান নয়। তোমার সায়েন্স আমার ক্যামেস্ট্রি,তার কসমোলজি অনাবশ্যক নয়। কিন্তু ট্রিপল E,বা পিওর ম্যাথামেটিক্স যে তোমার জন্মের উদ্দেশ্য সাধনে সক্ষম এই ভ্রম কোত্থেকে জাগলো বাপু? তুমি দেখছো না,দুনিয়াসুদ্ধ আজ ‘আদর্শশুন্যতার’ মহামড়কে খাবিখাচ্ছে! দেখেও ঘুমাও???

আমার রুহি শিখবে রাব্বি জিদনি ইলমা,উপমা বলবে রাব্বির হামহুমা কামা রাব্বাইয়ানি সাগীরা আর ইলহাম তার নামের সৌকর্য নিয়ে জলদগম্ভীর স্বরে তিলাওয়াত করবে,
“আল্লাজি খালাক্বাল মাওতা ওয়াল হায়াতা লি আবলুয়াকুম আইয়ুকুম আহছানু আ’মালা।” সে রবের কাছে ফেরার তাগাদায় ইলহামদের অন্তরে জাগিয়ে রাখতে চাই,
” আল্লাহ তায়া’লা জীবন-মৃত্যু সৃজন করেছেন কার আ’মল উত্তম সেটি যাচাইয়ের জন্যে।” আমরা কী শুনতে পাই!

সন্তানের জিহবায় কণ্ঠে মগজে মননে ইলমে ইলাহির বীজ রোপণ করে দাও।ইহকাল পরকাল তোমার হয়ে যাবে। যাবেই ইনশাআল্লাহ। বিজ্ঞান দর্শন অর্থহীন হয়ে পড়ে ধর্মের মৌলিক জ্ঞানহীনতায়।সাবধান সাবধান। আপনার কফিনে কবরে জানাযায় মিলাদে ইছালে সাওয়াবে অতিথি নয়,হোস্ট হয়ে জয়েন করুক আপনারই রক্তের ধারা।
শিরোনাম সত্যি হয়ে গেলে তোমরা আমার বাণী পৌঁছে দিও আমার তিন সন্তানে…।

  1. Courtesy: মিজান বিন মজিদ

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....