• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক! ফেসবুকে পরিচয় ও প্রেম-অতপরঃ এক কলেজ শিক্ষিকাকে কলেজ ছাত্রের বিয়ে!

বাংলাদেশের রাজনীতি যেন বিশেষ উপায়ে তৈরি নেশাযুক্ত ট্যাবলেট!

AnonymousFox_bwo / ২৭৭ মিনিট
আপডেট রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১

ড. মেহেদী মাসুদ।

বাংলাদেশে রাজনীতি করা মানে হলো বিশেষ কোনো দলের বিশেষ উপায়ে বানানো নেশা যুক্ত একটা ট্যাবলেট খাওয়া। হোক সেটা ইসলামিক কিংবা নন-ইসলামিক রাজনীতি। প্রথমত, এই নেশা যুক্ত ট্যাবলেট গ্রহণ করার সাথে সাথে আমরা দিনকানা রোগী হয়ে যাই। আমরা শুধু অন্য দলের আকাম কুকাম দেখতে পাই। কিন্তু নিজের দলের আকাম কুকাম নিজেদের কাছে খুবই উপভোগ্য কিংবা দলের অধিকার বলে মনে হয়। মাগার অন্য কেউ করলে তাদের রেহাই নাই।
দ্বিতীয়ত,এই ট্যাবলেট খাবার সাথে সাথে আমরা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী হয়ে যাই। আমাদের বিবেক বুদ্ধি দারুণভাবে লোপ পেতে শুরু করে, ন্যায় অন্যায়ের বিচার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলি।দলের সকল কর্মকান্ড সঠিক বলে মনে হয়। নিরপেক্ষভাবে চিন্তা করার সক্ষমতা পর্যন্ত থাকে না। দলের পক্ষে খুন, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি, রাহাজানি, জ্বালাও-পোড়াও, হুমকি, ধামকি সবই যেন দলীয় কর্ম কান্ড মনে হয় । যে করেই হোক দলীয় সকল অপকর্মের সমর্থন করা কর্মী হিসাবে নৈতিক দায়িত্ব মনে করি।
তৃতীয়ত, এই বড়ি খেয়ে আমরা বধির হয়ে যাই, কোনো নির্যাতিত মানুষের আত্মচিৎকার, হাহাকার আমাদের কর্ণ কুহরে ডুকে না।কারণ, এরা আমার দলের মতের বিরুদ্ধে লোক। এদের বেঁচে থাকার কোনো অধিকার নেই।
চতুর্থ, এই বড়ি আমাদের সহনশীলতা, সামাজিক বন্ধন, একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা ভালোবাসা কেড়ে নিয়ে ক্ষান্ত হয়নি। পক্ষান্তরে, আমাদের মধ্যে হিংসা বিদ্ধেষের বীজ এমন ভাবে রোপন করে পুরো জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে যাতে আমরা আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্ন করে চলেছি, প্রতিবেশীর মাথায় আঘাত করছি, যাকে তাকে কাফের, মুশরিক, ভন্ড বলে গালি দিচ্ছি। অথচ আমরা বেমালুম ভুলেই যাচ্ছি যে, তারাই আমাদের সন্তান, আমাদের ভাই কিংবা বোন।

তাই আমার ফেসবুকের ছোট ছোট ভাই বোনদের বিশেষভাবে অনুরোধ করছি এই বিশেষ বড়ি না খেয়ে পড়াশুনায় মনোযোগ দিতে, আর অন্য কোনো পেশায় থাকলে মনোযোগ দিয়ে কাজ করতে। মনে রাখবে দুনিয়ার বাহাদুরি ক্ষনিকের জন্য !

লেখকঃ শিক্ষক-University of Malaya,


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....