• বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৮:১৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বিএমএসএফ কক্সবাজার জেলা শাখার উদ্দ্যোগে ১৫-ই আগষ্ট উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন। নারী চিকিৎসককে গলা কেটে হত্যা, কথিত প্রেমিক কক্সবাজারের রেজা চট্টগ্রামে আটক ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

ওই রাতের কথা মনে করতে চান না পরীমনি

AnonymousFox_bwo / ২০৮ মিনিট
আপডেট সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১

 

 

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার সেই রাতের ভয়াবহ ঘটনা মনে করতে চান না ঢালিউড অভিনেত্রী পরীমনি। তিনি বলেন, ওই রাতের কথা তো আসলে স্মৃতি থেকে মুছে ফেলা যাবে না। কিন্তু সেই রাতের কথা আমি মনে করতে চাই না।
সোমবার (১৪ জুন) রাতে বনানীর বাসায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন ঢালিউড অভিনেত্রী।
এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে পরী বলেন, যখন কারও সাপোর্ট ছিল না, তখনও আমি ভেঙে পড়িনি। আর আপনারা আমাকে অনেক সাহস যুগিয়েছেন। তাই আমি কীভাবে ভেঙে পড়র?
অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেন নায়িকা। বলেন, সবাই আমাকে সাপোর্ট করছে। তাই এখন আমি অনেক সাহস পাচ্ছি। আশা করি, আরও শক্ত হয়ে দাঁড়াতে পারব।
এর আগে, পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার এক সপ্তাহ পর সোমবার প্রধান আসামিসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় রোববার (১৩ জুন) নায়িাকার একটি ফেসবুক স্ট্যাটাস ঘিরে তোলপাড় হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। পরে রাতে বনানীর নিজ বাসায় ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেন পরী।
সোমবার সকালে সাভার থানায় দায়ের করা মামলার এজাহারে নায়িকা বলেন, ১০ জুন রাতে পারিবারিক বন্ধু অমি ও ব্যক্তিগত কস্টিউম ডিজাইনার জিমির সঙ্গে বোনকে নিয়ে বাইরে গিয়েছিলাম। অমি আমাদের নিয়ে যায় আশুলিয়ায় উত্তরা বোট ক্লাবে। সেখানে মদ্যপানরত কয়েকজন ব্যক্তির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন অমি। ওই ব্যক্তিদের মধ্যে একজনের নাম নাসিরউদ্দিন আহমেদ। তিনি নিজেকে ক্লাবটির প্রেসিডেন্ট পরিচয় দেন। নাসিরউদ্দিনসহ উপস্থিত ব্যক্তিরা আমার সঙ্গে বাজে আচরণ করেন।
পরীমনি এজাহারে উল্লেখ করেন, মদ পান করতে না চাইলে নাসিরউদ্দিন (১ নম্বর আসামি) জোর করে আমার মুখের মধ্যে মদের বোতল প্রবেশ করিয়ে মদ খাওয়ানোর চেষ্টা করে। এতে আমার সামনের দাঁত ও ঠোঁটে আঘাত পান। সে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে স্পর্শ করে এবং আমাকে জোর করে ধর্ষণের চেষ্টা করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....