• রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৩১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
নারী চিকিৎসককে গলা কেটে হত্যা, কথিত প্রেমিক কক্সবাজারের রেজা চট্টগ্রামে আটক ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক!

করোনায় ৪ ঘণ্টার ব্যবধানে মারা গেলেন বাবা-ছেলে

AnonymousFox_bwo / ৩০৮ মিনিট
আপডেট শুক্রবার, ২ জুলাই, ২০২১

আইকন নিউজ ডেস্কঃ

ঠাকুরগাঁওয়ে চার ঘণ্টার ব্যবধানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইয়াকুব আলী (৭০) ও তার ছেলে আজগর আলী (৫৫) মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (০১ জুলাই) রাতে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে মারা যান ইয়াকুব আলী। আর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আজগর আলী।

বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন হরিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান মুকুল। তিনি আজগর আলীর খালাতো ভাই।

আজগর আলী ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার দনগাঁওয়ের গ্রামের বাসিন্দা। তিনি হরিপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও স্থানীয় শীতলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, গত ২৫ জুন ইয়াকুব আলী জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে যায়। এ সময় তাকে করোনা পরীক্ষার পরামর্শ দেয় চিকিৎসক। পরে পরিবারের লোকজন তাকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ভর্তি করায়। সেখানেই তার করোনা পজিটিভ আসে।

পাঁচ দিন পর ইয়াকুব আলীর ছেলে আজগর আলীর নমুনা হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেওয়া হয়। এ সময় তারও করোনা শনাক্ত হয়। ওদিন রাতেই তাকে দিনাজপুর আব্দুর রহিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হরিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান মুকুল ঢাকা পোস্টকে বলেন, করোনা পজিটিভ হলে প্রথমে খালুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর পাঁচ দিন পর আবারো করোনা পজিটিভ হয় খালাতো ভাইয়ের। তাকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বেশ কয়েক দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকার পর গতকাল রাতে খালু কিছুটা সুস্থ হওয়ায় তাকে বাসায় নিয়ে আসা হয়।

কিন্তু বাসায় ফিরেই হঠাৎ মারা যায় তিনি। এর চার ঘণ্টা পর খবর আসে খালাতো ভাই আজগর আলীর অবস্থা ভালো না। তাকে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হয়েছে। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় তিনি।

এদিকে ঠাকুরগাঁওয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২৫ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৫০৯ জনের। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৪৫ জন এবং মারা গেছেন ৮৩ জন।

সুত্রঃ ঢাকা পোস্ট।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....