• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক! ফেসবুকে পরিচয় ও প্রেম-অতপরঃ এক কলেজ শিক্ষিকাকে কলেজ ছাত্রের বিয়ে!

ভাঙা ডিভাইডার পার হচ্ছিলেন, আইনজীবীকে পিষে দিল ট্রাক!

AnonymousFox_bwo / ২২১ মিনিট
আপডেট বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

 

 

রাজধানীর শ্যামলীতে সড়ক ডিভাইডারের ভাঙা অংশ দিয়ে পার হওয়ার সময় ট্রাকের নিচে পিষ্ট হয়ে ফরিদ উদ্দিন ভূঁইয়া নামে কুমিল্লা কোর্টের এক আইনজীবী নিহত হয়েছেন।

বুধবার (৭ জুলাই) সকালে রাজধানীর মিরপুর রোডের শ্যামলী এলাকার তিন নং রোডের মাথায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শ্যামলী এলাকার তিন নম্বর রোডের মাথায় ডিভাইডারের ভাঙা অংশ দিয়ে পার হচ্ছিলেন আইনজীবী ফরিদ উদ্দিন ভূঁইয়া। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, সড়ক পার হওয়ার সময় মাথায় আঘাত পেয়ে নিচে পড়ে যান তিনি। এসময় তাকে চাপা দেয় দ্রুত গতিতে আসা একটি ট্রাক। আহত অবস্থায় স্থানীয়রা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ঘটনার পর হাসপাতালে ছুটে আসেন তার স্ত্রী শাহেনা আক্তার।
শাহেনা আক্তার জানান, সকালে মিরপুরের নিজের জমি দেখতে রায়েরবাজার থেকে বের হয়েছিলেন ফরিদ উদ্দিন। ফেরার সময় শ্যামলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
দুর্ঘটনার ২০ মিনিট আগেও ফরিদ উদ্দিনর সাথে কথা হয়েছিল তার। কিন্তু এর কিছুক্ষণ পর অন্য এক আইনজীবী তাকে ফোন করে দুর্ঘটনার কথা জানান।
ফরিদ উদ্দিন ভূঁইয়া ১৯৮১ সাল থেকে কুমিল্লা কোর্টের আইনজীবী হিসেবে কাজ করছেন। তার গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর।
এই ঘটনার পর ট্রাকটি আটক করেছে শেরেবাংলা নগর থানা পুলিশ। থানার অফিসার ইনচার্জ জানে আলম মুনশী জানান, চালক ও হেলপারকে ধরতে অভিযান চলছে, অল্প সময়ের মধ্যে তাদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।
এদিকে এ ঘটনার পর শ্যামলীতে গিয়ে দেখা যায়, মাত্র কয়েক গজ দূরে রয়েছে ফুটওভার ব্রিজ। তবুও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ভাঙা ডিভাইডারের নিচ দিয়ে মানুষ পারাপার করছে।
কর্তব্যরত পুলিশ এসআই জাকিরুল ফিরোজ জানান, মানুষকে বাধা দেওয়ার পরও ভাঙা ডিভাইডার ব্যবহার করে মানুষ পারাপার করছে। এছাড়া কে বা কারা রাতে ডিভাইডার ভেঙে নিয়ে যায় ফলে এই ফাঁকা স্থান দিয়ে মানুষ পারাপার করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....