• রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৯:০৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
নারী চিকিৎসককে গলা কেটে হত্যা, কথিত প্রেমিক কক্সবাজারের রেজা চট্টগ্রামে আটক ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক!

রাষ্ট্র কর্তৃক সাংবাদিকতায় নির্দিষ্ট মানদন্ড ঘোষনা বর্তমান সময়ের সেরা দাবি।

AnonymousFox_bwo / ২৩৩ মিনিট
আপডেট বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

এম আর আয়াজ রবি।

কি আর বলব! কসাইকে হার মানাবে সাংবাদিক নামক অধিকাংশ সমগোত্রীয়দের কার্যকলাপে! কিন্তু আমি নিজকে ধিক্কার দিতে একটুও দেরি করিনা। কারন এ পেশার সাথে জড়িত সিংহভাগ মানুষের চিন্তা, চেতনা, মনমানসিকতা, চলন, বলন, কৌশল অনেক কিছু খুব কাছ থেকে দেখার, অনুমান করার বা বাস্তবতা উপলব্ধি করার যথেষ্ট বয়স, পারংগমতা ও বিবেচনাবোধের সুযোগ হয়েছে। অধিকাংশ নামধারী সাংবাদিক টাকার বিনিময়ে সহজে প্রাপ্ত কার্ড গলায় ঝুলিয়ে কিছু তথাকথিত সিনিয়র সাংবাদিকদের পা ছাটা গোলাম হয়ে, সমাজের কিঞ্চিৎ আদর্শিক সাংবাদিকতা চর্চা করার যারা চেষ্টা করেন, তাদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়ে, তাঁদের (আদর্শিক সাংবাদিকদের) ইমেজ সংকট তৈরি করে একচেটিয়া আধিপত্য ধরে রাখার হীন মানসে নির্লজ্জ চেষ্টায় সদা ব্যস্ত থাকে!

ইদানিংকালে, অনেকেই সাংবাদিক পরিচয়ে ইয়াবা, সন্ত্রাস, আধিপত্যবাদ, সামাজিক নানা অপরাধের সাথে গা ভাসিয়ে নীরব চাঁদাবাজিতে আপাদমস্তক নিয়োজিত রেখেছে বিভিন্ন ছদ্মাবরনে! পুলিশের মত পাঁচ টাকা, দশ টাকা নিতেও কার্পণ্য করে না কিছু সাংবাদিক পরিচয়ের সাংঘাতিক!! দু, তৃতীয়াংশের নেই কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা, নীতি, নেই নৈতিকতার বালাই, শুধু ধামাধরা হয়ে কিছু তথাকথিত সিনিয়রদের পেছনে ঢুঁ মেরে ফফর দালালী করতে মারাত্মক ওস্তাদগীরি করে সময় পার করছে!!

রাষ্ট্রের তৃতীয় স্তম্ভগুলো হচ্ছে আইন বিভাগ, বিচার বিভাগ ও শাসন বিভাগ। এর বাইরে চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে সাংবাদিকতাকে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু এই হ-য-ব-র-ল সাংবাদিক সমাজকে রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে বিবেচনা করাটা কতটুকু যৌক্তিক এখন সময়ই বলে দেবে। রাষ্ট্রকে সাংবাদিকতা বিষয়ে ভাববার ও চিন্তা করার সময় এসেছে। তাই সাংবাদিকতা পেশাকে একটি নির্দিষ্ট মানদন্ডে ঢেলে সাজালে, সাংবাদিকতাকে সত্যিকার অর্থে রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে পরিগণিত করার অবকাশ সৃষ্টি করা এখন সময়ের সেরা দাবিতে পরিনত হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....