• সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক! ফেসবুকে পরিচয় ও প্রেম-অতপরঃ এক কলেজ শিক্ষিকাকে কলেজ ছাত্রের বিয়ে! উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা নির্বাচিত। উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল ও সম্মেলন কালঃ সভাপতি ও সাঃসম্পাদক পদে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস। আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই , মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডঃ শিরীন আখতার। আসন্ন উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি বার্ষিক নির্বাচনে, সভাপতি পদে জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী স্পষ্টতঃ এগিয়ে। উখিয়ায় পয়ঃনিষ্কাশন ও পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থার অপ্রতুলতা এবং ময়লা ফেলার নির্দিষ্ট ভাগাড়ের অভাব। দেশে প্রতিবছর পানিতে ডুবে ১৪ হাজারের বেশি শিশুর মৃত্যু হয়। যানযট নিরসন ও বনভুমি রক্ষার্থে কঠোর সিদ্ধান্তে যাচ্ছেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

উখিয়ায় গভীর রাতে ইয়াবা কারবারী কতৃক সাংবাদিকের বসত বাড়ীতে ঢুকে হামলা

AnonymousFox_bwo / ৩১৯ মিনিট
আপডেট শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১

আইকন নিউজ ডেস্কঃ

উখিয়া বাজারের মাছ ব্যবসায়ী ফরিদের ছেলে কথিত ইয়াবা কারবারী আলমগীর প্রকাশ টনাইয়া, রেজা, যায়েজ, ইয়াবা গডফাদার ভুলু সিকদার, ভুলু সিকদারের ছেলে আরাফাত, তার জামাতা বার্মাইয়া মান্নুর সহ তাদের পালিত সন্ত্রাসী গ্রুপ মিলে গভীর রাতে উখিয়া বাজারেরর জাকের মুন্সীর বাড়ীতে প্রবেশ করে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায় এবং উপজেলা প্রেসক্লাব উখিয়ার সদস্য এবং দৈনিক জনতার কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি কফিল উদ্দীন আনু,র উপর বর্বর হামলা চালায়। হামলার এক পর্যায়ে তারা পুরো পরিবারকে মেরে ফেলার ও হুমকি দেয়। প্রত্যক্ষদর্শীর মতে তাদের ইয়াবা ব্যবসার প্রতিবাদ করায় কফিল উদ্দীন আনুর উপর এ হামলা করে বলে জানা যায়। তারা আরো জানান এসব ইয়াবা কারবারীরা দিন দিন বেপোরোয়া হয়ে উঠছিলো বিধায় তাদেরকে নিষেধ করা হয়েছিলো বাজারে ইয়াবা ব্যবসা না করতে। আর তারই প্রেক্ষিতে এ হামলার ঘঠনা ঘঠে। এ বিষয়ে রাত আনুমানিক ১-৩০ মিনিটের সময় উখিয়া থানাকে অবহিত করলে উখিয়া থানার এস আই সাইফুল ফোর্স নিয়ে ঘঠনাস্থলে আসার খবর পেয়ে সন্ত্রাসী ইয়াবা কারবারীরা গা ঢাকা দেয়। এলাকাবাসীর মতে এখানে কিশোর গ্যাং এর সদস্য ও ছিলো। উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো এই সন্ত্রাসী গ্রুপটি গতো বেশ কয়েক বছর ধরে উখিয়া বাজারে আধিপত্য বিস্তার করে ইয়াবা ব্যবসা সহ, চাঁদাবাজি, কেউ চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে মারধর সহ এমন কোন অপকর্ম নেই যা তারা করছেনা।
এখানে উল্ল্যেখ্য যে গতো ৪ আগষ্ট হামলা কারীদের মধ্যে
দুজন ১) আলমগীর ২) ভুলু পালংখালীতে মাদকদ্রব্যসহ বিজিবির হাতে আটক হয়ে প্রচুর মার খেয়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয় , এবং কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে আসে। যা তারা সোশ্যাল মিডিয়ায় আহত সাংবাদিক পরিবারের লোকজন মেরেছে বলে চালিয়ে দিচ্ছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বিষয়টি তদন্তের জন্য উখিয়া থানাকে অবহিত করেন।

এ ব্যপারে গতোকাল আহত সাংবাদিক স্বশরীরে গিয়ে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চেয়ে উখিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ জনাব সঞ্জোর মোর্শেদের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
উখিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ বলেন, বিষয়টি আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....