• রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৪৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
নারী চিকিৎসককে গলা কেটে হত্যা, কথিত প্রেমিক কক্সবাজারের রেজা চট্টগ্রামে আটক ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক!

বর্তমানে শিক্ষাগুরুর সামাজিক সীমাবদ্ধতা

AnonymousFox_bwo / ২৭৪ মিনিট
আপডেট রবিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২১

আইকন নিউজ ডেস্কঃ 

শিক্ষার্থী মাথায় পাহাড় সমান চুল রাখুক কিংবা কাটা-ছেড়া ফাটা ডিজাইনের জিন্স পরে ক্লাসে আসুক কিংবা টি শার্ট থ্রি কোয়ার্টার পরে ক্লাসে আসুক।কিংবা লুঙ্গি পরে বাথরুমের জুতা পরে আসুক, সেটা তার ব্যাপার।
তুমি শিক্ষক, শিক্ষা দান করা তোমার দায়িত্ব, তোমার কাজ ডায়াসের সামনে দাঁড়িয়ে সুন্দর শব্দ চয়নে জ্ঞান গরিমার কথা বলা,পাঠের তরজমা করা। কেউ শোনে শুনুক , না শোনে না শুনুক,খোশ গল্প করুক কিংবা মোবাইলে গেমস খেলুক ও বিষয়ে তোমার কথা বলা দরকার নেই। নিজের কাজের বেশি করতে যাও কেন?

তারা স্বাধীন, তারা যা কিছু করতে পারে। তুমি পরাধীন, তোমার হাত পা বাধা। তোমাকে মেপে মেপে চলতে হবে,মেপে বলতে হবে,মেপে করতে হবে।

তোমার কেন নাপিতের দায়িত্ব নিতে হবে?
তোমার কেন পিতার ভুমিকা নিতে হবে?
তোমার কেন মাতার ভূমিকা নিতে হবে?
তুমি তোমার ভূমিকায় সাবলীল অভিনয় করে যাও,
আগ বাড়িয়ে কিছু করতে যেয়ো না।

পরিবেশ জ্ঞান দেয়া, শিষ্টাচারের জ্ঞান দেয়া, পোশাক পরিচ্ছেদের জ্ঞান দেয়া, শাসন করা, তোমার কাজ না
এগুলো পরিবারের কাজ।রাষ্ট্রের কাজ,পুলিশের কাজ।

তুমি হচ্ছ জীবন নাটকের ডেলিভারি ম্যান।সিলেবাসের জ্ঞান ডেলিভারি দেয়া তোমার কাজ।

আমাদের সময়ে শিক্ষকরা বেদম প্রহার করেছে।পড়া না পারার কারণে হোক,কিংবা বেয়াদবি করার কারণে হোক,কিংবা স্কুল কামায় করার কারণে হোক।কিংবা শিষ্টাচার শেখানোর জন্য হোক।
একটু চুল বড় হলে নেঁড়ে করে দিছে।নখ বড় হলে কেটে দিছে। পড়া না পাড়লে নিল-ডাউন করিয়েছে।বেতের আঘাতে হাটতে পারিনি,অনেক সময় চাকা চাকা হয়ে উঠছে গা,অনেকে রক্ত ঝরেছে,তিনদিন জ্বরে পড়েছে,কেউ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে।তথাপি পরিবার শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোন নালিশ করেনি।বরং আরও বলে এসেছে -হাড্ডি আমার, মাংস আপনাদের।বলেছে আপনারা শুধু শিক্ষক নন, গুরুজন। এখনো সে সব শিক্ষদের সাথে এক সাথে চা খেতে বুক কাপে, এখনো মস্তক অবনত হয়।

কিন্তু এখন সময় ভিন্ন। পৃথিবীতে অনেক কিছুর পরিবর্তন ঘেটেছে।কীর্তিনাশা পদ্মা হারিয়ে তার বেগ, যমুনা বুকে চর জেগেছে, বুড়ি গঙ্গা আজ মৃত নদী।গ্রামে আজ সোড়িয়ামের বাতি জ্বলে, ঘরে ঘরে স্টার জলসা চলে।হাতে হাতে চলে মোবাইল ফোন।আগে পরিবার পরিকল্পনার কাজ ছিল জনসংখ্যা কমান।অধিক সন্তান যেন না হয় তার জন্য বাড়ি বাড়ি স্বাস্থ্য কর্মী ছুটে যেতো।বলত দুটোর বেশি নয়, একটা হলে ভালো হয়।
আর আজ সন্তানে লাভের জন্য ডাক্তারের চেম্বারে চেম্বারে ঘোরে, একটা সন্তানের আশায় মাদ্রাজ বম্বে পর্যন্ত ঘুরে আসে।পীর দরবেশের কাছে মানত করে।তারপর একটা কিংবা দুটো সন্তান লাভ করে।সেই সন্তানের গায়ে হাত দিতে দেবে আপনাকে,মাথার চুল কাটতে দেবে।
এসব আপনাকে ভাবতে হবে,এসব আপনার মাথায় রাখতে হবে।আপনি এখন শুধু শিক্ষক, গুরুজন নন।
আপনার মতো অনেক শিক্ষককে তারা বাসায় পোশে।তাই নিজের কাজ জানুন,সেটাই করুন, অতিরিক্ত করতে যাবেন না।

( ফেসবুক থেকে নেওয়া)


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....