• শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ভোটার প্রক্রিয়ায় রোহিঙ্গা অধ্যুষিত সীমান্ত এলাকার জন্য ইসি সচিবালয় কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশিকা। কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইন চার্জ মনোনীত হয়েছেন’ উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী নাদিম আবাসিক হোটেলে মিলল এক নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, কথিত স্বামী পলাতক। বনের জন্য কক্সবাজার হবে মডেল জেলা-প্রধান বনসংরক্ষক কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হেড মাঝিসহ ০২জন নিহত। আর্থিক খাতে লুটপাটের দায় জনগণ শোধ করবে কেন? মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে চলমান অভিযান অব্যাহত রেখে তরুণ সমাজকে রক্ষা করুণ । কক্সবাজার জেলা বিএমএসএফ এর জরুরী সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া স্পেশালাইজড হসপিটাল এ জনপদের চাহিদা, আশা-আকাঙ্ক্ষা পুরণে সক্ষম? নাকি শুধুই গতানুগতিক! ফেসবুকে পরিচয় ও প্রেম-অতপরঃ এক কলেজ শিক্ষিকাকে কলেজ ছাত্রের বিয়ে!

প্রসঙ্গঃ উখিয়ায় এটিএম বুথ ও জনগণের প্রচ্ছন্ন হয়রানী

AnonymousFox_bwo / ২৪০ মিনিট
আপডেট মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর, ২০২১

এসএম সরওয়ার উদ্দিনঃ
উল্লেখিত ছবি ২টা উখিয়া উপজেলার ২ স্বনামধন্য মানুষের আর্থিক ও আমানতের নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান First Security Islami Bank এবং Islami Bank Bangladesh Ltd এর এটিএম বুথ। রোহিঙ্গা, UN Body, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন এনজিও সংস্থা আসার কারণে উখিয়া – টেকনাফ সারা বিশ্বে আলোচিত একটি নাম। দেশি বিদেশী এনজিও কর্মীর চাকুরির সুবাদে উখিয়া – টেকনাফ এখন ইউরোপিয়ান
কান্ট্রির কোন এক জনপদের নাম! সকাল – বিকাল বাসা থেকে বের হলে দেশ বিদেশী গাড়ি এবং

চাকুরীজীবিদের কোলাহল দেখতে পাওয়া যায়। রোহিঙ্গা আসার কারণে উখিয়া টেকনাফের সামাজিক, অর্থনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক অবস্থা সম্পূর্ণ ভাবে পরিবর্তন হয়ে গেছে। যাহা অত্র এলাকার মানুষের কল্পনার বাহিরে ছিল। এবার আসি মূল প্রসংগে। আমি গত ০৭/১১/২০২১ইং তারিখ আমার এক নিকটাত্মীয়কে কিছু টাকা দেওয়ার জন্য আমার ২ ব্যাংকের ২ টি ভিসা কার্ড নিয়ে টাকা উত্তোলন করার জন্য সকাল ১০ টায় প্রথমে পূবালী ব্যাংক উখিয়া শাখার এটিএম বুথে যায়। ওখানে গিয়ে দেখি বুথ

খোলা কিন্তু টাকা নাই! এরপর যায় ইউনিয়ন ব্যাংকের বুথে। ওখানে গিয়ে দেখি বুথ বন্ধ! এরপর গাড়িতে করে কোটবাজার যায় ফাস্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের এটিএম বুথে। ওখানে গিয়ে দেখি বুথে সার্ভার সমস্যা! আবার যায় ইসলামী ব্যাংকের এটিএম বুথে, ওখানে গিয়ে দেখি বুথ বন্ধ! কী আশ্চর্য বিষয়! আমার আর্জেন্ট টাকা দরকার, কিন্তু কোথাও গিয়ে টাকা পাচ্ছিনা। টেনশন এবং রাগ করে উঠলাম কোটবাজার FSIBL ব্যাংকে। সোজা গেলাম ম্যানেজার এর রুমে। ওনাকে গিয়ে বল্লাম ভাই আমার জরুরী টাকা দরকার কিন্তু আপনাদের বুথ থেকে টাকা উত্তোলন করতে পারছিনা। ওনি আমাকে বল্লেন সার্ভার সমস্যা। আম ম্যানেজারকে বল্লাম আপনাদের বুথের এতরকম সমস্যা থাকলে

এটিএম বুথ বন্ধ করে দিন। আমাদের কেন এত ভোগান্তিতে ফেলবন? কোনদিন কালেভদ্রে ও বুথ থেকে জরুরী মুহূর্তে টাকা উত্তোলন করতে পারিনা। এই যদি অবস্থা হয় আপনারা সম্পূর্ণ রুপে এটিএম বুথ বন্ধ করে দিন। কেন গ্রাহকদের এত হয়রানি করবেন? তা নাহলে চিরতরে আপনাদের বুথ বন্ধ করে দিন। গ্রাহকরাও আপনাদের প্রতারণা এবং হয়রানি থেকে বাঁচবে!!! ব্যাংক থেকে বের হয়ে মরিচ্চা বাজারের এক বুথের নিরাপত্তা কর্মীকে ফোন দিলোম, ওনি বল্লেন বুথে টাকা আছে কোন সমস্যা নাই! আমি ভাবলাম মূল শাখায় এত হয়রানি আউট লেটের বুথ থেকে কীভাবে টাকা উত্তোলন করব? কোটবাজার থেকে আবার গাড়িতে করে মরিচ্চাবাজারে গিয়ে টাকা তুলে আনলাম, ততক্ষণে অনেক দেরী হয়ে গেছে। ওখানে যাকে টাকা দেওয়ার কথা ছিল ওনি রেগেমেগে

অগ্নিশর্মা! কী এক ব্যাংকের তুঘলকি কান্ড? গ্রাহকদের অনেকে দেখলাম, ব্যাংকারদের অনেকে নোংরা ভাষায়
গালিগালাজ করতেছে! কেন ভাই আমাদের টাকায় আপনাদের বেতন হয়, আপনাদের সংসার চলে, আপনারা কেন গ্রাহকদের এত হয়রানি করবেন??? সুতরাং উখিয়ার ব্যাংকারদের বলছি, আপনারা গ্রাহকদেরকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য এবং হয়রানি বন্ধ করুন।

আইক্ন নিউজ টুডে /আর/০৯১১২১


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....