• বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
তথাকথিত কোটিপতি তকমাদারীর আয়ের উৎস ও সামাজিক অবস্থান এবং মাদক প্রতিরোধে প্রশাসনিক দুর্বলতার ছাপ! মানবিকতার জঘন্যতম দৃষ্টান্ত স্থাপনে কক্সবাজারে আলাদা রাষ্ট্র প্রতিষ্টার চেষ্টায় রোহিঙ্গারা। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হাসপাতাল নয়, যেনো এক একটি রোহিঙ্গা প্রজনন কেন্দ্র। সমুদ্রের পানির উচ্চতা ঝুঁকিতে ‘বিশ্ব’ ও ‘বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চল’। মধ্যপ্রাচ্যের ‘ক্যান্সার খ্যাত’ ইসরাইল রাষ্ট্রের উভ্যূদয় ও রোহিঙ্গা জনগোষ্টির ‘স্বাধীন রাষ্ট্র’ স্বপ্ন ও বাস্তবতা রোহিঙ্গা সমাস্যা’ যা বাংলাদেশের গোঁদের উপর বিষফোঁড়াঃ একটি পর্যালোচনা। প্রেক্ষাপটঃ তৈল বিদ্যার তেলেসমাতি–যার প্রভাবে বর্তমান পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রে ত্রাহি ত্রাহি ভাব! বাজার নিয়ন্ত্রণ, মিথ্যার বেসাতি আর গোল খাওয়া পাবলিক ইসলামিক ‘রোজা’ ও বৈজ্ঞানিক ‘অটোফেজি’ শব্দের অর্থ, সাদৃশ্য ও বৈসাদৃশ্য। উখিয়া ভুঁইয়া ফাউন্ডেশন কর্তৃক মোটর সাইকেল শোভাযাত্রা, ঈদ পুর্ণমিলন ও বীচ ফুটবল খেলা সম্পন্ন।

তৃতীয় লিঙ্গ ( হিজড়া) সম্প্রদায়ের সাথে হেল্প কক্সবাজার-এর উদ্দ্যোগে ইফতার মাহফিল সম্পন্ন।

AnonymousFox_bwo / ৯৪ মিনিট
আপডেট শনিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২২

আইকন নিউজ ডেস্কঃ

হেল্প কক্সবাজারের সৌজন্যে, হেল্প কক্সবাজার পান্যিসিয়া ডিএলডি ( ডিসএবিলিটি লার্নিং এন্ড ডেভেলাপ) সেন্টারে,
উখিয়া উপজেলায় অবস্থিত সমাজের পিছিয়ে থাকা তৃতীয় লিঙ্গ(হিজড়া) সম্প্রদায়কে নিয়ে-এক ইফতার পার্টি সম্পন্ন হয়।

গতকাল ১৫-এপ্রিল-২২ তারিখ রোজ শুক্রবার, হেল্প কক্সবাজার এর নির্বাহী পরিচালক জনাব আবুল কাশেম-এর সভাপতিত্বে, হেল্প কক্সবাজার পাইন্যাসিয়া অফিসে উক্ত ইফতার পার্টি অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজ সেবক জনাব দলিলুর রহমান শাহীন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ জনাব গিয়াস উদ্দিন। আরও উপস্থিত ছিলেন জনাব ফরিদুল আলম, সাইফুল ইসলাম নয়ন, হেল্প কক্সবাজারের একাউন্টস এন্ড এডমিন অফিসার সৈয়দুল আমিন আরমান প্রমূখ।

বক্তারা সমাজের পিছিয়ে থাকা তৃতীয় লিঙ্গ ( হিজড়া) সম্প্রদায়কে সমাজের মুল স্রোতে নিয়ে এসে তাদের উন্নয়নে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। স্বভাবতই তৃতীয় লিঙ্গ এর সম্প্রদায়ের মানুষগুলো সুযোগ, সুবিধা বঞ্চিত। সমাজের পিছিয়ে পড়া এই জনগোষ্ঠীর ভাগ্যোন্নয়নে ও সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি কল্পে এবং সমাজে অন্য দশজনের মত গ্রহণযোগ্য হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সবাইকে সম্পৃক্ত হয়ে একযোগে কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে তারাও রক্ত, মাংসে গড়া আমাদের মত মানুষ। তাদের এ অবস্থার জন্য তাদের কোন হাত নেই, মহান আল্লাহ তায়ালা তাদেরকে এভাবে সৃষ্টি করেছেন। তাই তাদেরকে মানুষ হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করে, তাদের মৌলিক অধিকার সংরক্ষণে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর....