• রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৪৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এ বছরে নোবেল প্রাইজের জন্য মনোনীত বাংলাদেশী চিকিৎসক রায়ান সাদী কক্সবাজারে ৪২ কোটি টাকায় বনায়ন, নতুন রূপে সাজবে হিমছড়িসহ কক্সবাজার জেলা। পুলিশের প্রশিক্ষণ খাতে এনজিওগুলো শত শত কোটি টাকা অনুদান পেয়েছে : বেনজীর আহমেদ  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গত রাতেও ০১ জন খুন, অস্থিতিশীল অবস্থায় স্থানীয়রাও চরম আতংকে। র‍্যাব-৭ কর্তৃক ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ইয়াবাসহ ০৩ জন আটক। র‍্যাব-৭ কর্তৃক ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ইয়াবাসহ ০৩ জন আটক। উদ্ধারকৃত ইয়াবার আনুমানিক মুল্য ৬ কোটি। উখিয়া রেঞ্জকর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে উদ্ধারকরা ৩ শতাধিক বক অবমুক্ত করা হয় উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এক রোহিঙ্গা ভলান্টেয়ারকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নির্মমভাবে খুন। ঘুংধুম সীমান্তে চরম উত্তেজনায় এসএসসি ও সমমানের পরিক্ষার কেন্দ্র পরিবর্তন শাড়ি পরে কলেজে গেল ছেলে, ছবি পোস্ট করলেন ‘গর্বিত’ বাবা!

উখিয়া টেকনাফ মায়ানমার সীমান্তে, ভারী অস্ত্রের শব্দে প্রকম্পিতঃ এলাকাবাসী গভীরভাবে উদ্বিগ্ন

AnonymousFox_bwo / ৪১ মিনিট
আপডেট সোমবার, ২২ আগস্ট, ২০২২

আইকন নিউজ ডেস্কঃ

উখিয়া-টেকনাফ ঘুংধুম, বালুখালী, পালংখালী, টেকনাফের হোয়াইক্যং সীমান্তজুড়ে মায়ানমারের অভ্যন্তরে ভারী গোলাগুলির শব্দে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে স্থানীয় অধিবাসীদের। বিশ্বস্তসুত্রে জানা যায়, আগষ্ট মাসের ৭ তারিখ থেকে প্রায় প্রতিদিন থেমে থেমে গুলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। তবে, গত রবিবার রাত থেকে সোমবার সকাল ৭ টা পর্যন্ত অস্বাভাবিক গোলাগুলির শব্দ শুনা গেছে বলে জানিয়েছেন সীমান্তের লোকজন।

আজ সকালে ভারী গুলার শব্দে ঘুম ভাঙে অনেকের। তারা জানায় থেমে থেমে সকাল ৭টা পর্যন্ত শুনা যায় গোলাগুলির ভারী শব্দ। এটি মায়ানমারের আভ্যন্তরীণ সামরিক মহড়া নাকি বিবদমান পক্ষের মধ্যে চলমান অস্ত্রের মহড়া সে ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।তবে  বিবদমান পক্ষের মধ্যে সৃষ্ট ঘটনার হয়ে থাকলে, আবারো রোহিঙ্গার ঢল বাংলাদেশে আসছে কিনা এ ব্যাপারে সচেতন মহলের মধ্যে মারাত্মক প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে।

তবে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সমস্যার কারণে সরকার ও সুচি পন্থীদের মাঝে সংঘর্ষে এই গুলাগুলির ঘটনা ঘটছে বলে অসমর্থিত সুত্রে জানা গেছে।

ঘুমধুম এলাকার জনৈক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, প্রায় অনেকদিন যাবৎ আমরা পার্শ্ববর্তী দেশের অস্ত্রের আওয়াজে ঠিকভাবে ঘুমাতে পারছি না। রাত্রে গোলার আওয়াজ আরো বেশি শুনা যায়।

টেকনাফ হোয়াইক্যং কাটাখালী এলাকার হারুন শিকদার জানান, ভারী গুলাগুলির আওয়াজে আজ সকালে তার ঘুম ভাঙ্গে। থেমে থেমে সকাল ৭ টা পর্যন্ত গুলাগুলির এই শব্দ শুনা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঘুংধুম এলাকার এক প্রত্যক্ষদর্শী তাদের ওই এলাকায় মিয়ানমারের গোলাগুলির সময়, কিছু অংশ বাংলাদেশ সীমান্তের অভ্যন্তরে এসে পড়া একটি গুলি তিনি চোখে দেখেছেন বলে জানান। এটি হয়ত কোন দুষ্কৃতকারী মায়ানমারের ঐ পাড় থেকে বাংলাদেশ ভূখন্ডে রেখে আমাদের দেশকে উত্তেজিত করার হীন উদ্দেশ্যে কেহ করতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।
তবে এ বিষয়ে দায়িত্বশীল কোন সংস্থা থেকে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর....